Wednesday, Sep 27 2017

বেক প্রধানমন্ত্রী ইংলাক শিনাওয়াত্রাকে ৫ বছরের জেল দিয়েছে থাইল্যান্ডের আদালত। কৃষকের কাছ থেকে ভর্তুকি দিয়ে চাল কেনায় দুর্নীতির অভিযোগ এনে তার বিরুদ্ধে এ রায় দেয়া হয়েছে। গত মাসে দেশ

Wednesday, Sep 27 2017


মিয়ানমারের সহিংসতা নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে হয়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে। মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর চালানো নির্যাতন, তার ফলে বন্যার পানির মতো তাদের দেশত্যাগ ইস্যুতে আলোচনা হয় তাতে। তবে এর বিরুদ্ধে কি পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে তা স্পষ্ট জানা যায় নি। বৃহস্পতিবার নিরাপত্তা পরিষদের উন্মুক্ত বিতর্ক হবে এ ইস্যুতে। তাতে বক্তব্য রাখবেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্টনিও গুতেরাঁ। তিনি মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতার বিস্তারিত তুলে ধরবেন। এর পর বিতর্কের পর বোঝা যাবে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে কি পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে নিরাপত্তা পরিষদ। তবে জাতিসংঘে বৃটিশ উপ রাষ্ট্রদূত জোনাথন অ্যালেন বলেছেন, সহিংসতা যাতে বন্ধ হয় সেজন্য মিয়ানমারকে পরিস্কার বার্তা দিতে হবে। রাখাইন রাজ্যে মানবিক সহায়তা অনুমোদন করতে হবে। রোহিঙ্গাদের মর্যাদা নির্ধারণ করতে হবে। ওদিকে ফরাসি রাষ্ট্রদূত ফ্রাঁসোয়া দেলাত্রি বলেছেন,মিয়ানমারের ওপর তীব্র চাপ সৃষ্টি করতে নিরাপত্তা পরিষদকে কঠোর ও ঐক্যবদ্ধ সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এ মাসের শুরুর দিকে এই সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছিল নিরাপত্তা পরিষদ। তাতে সমর্থন দিয়েছিল চীন। দেশটি মিয়ানমারের সাবেক সামরিক জান্তাদের মিত্র বলে পরিচিত। এমন কি এখনও নির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় আসার পর তাদেরকেই ‘বিগ ব্রাদার’ মানছে মিয়ানমার। নিরাপত্তা পরিষদের ওই আহ্বান ও তাতে চীনের সমর্থনের পরও রোহিঙ্গাদের দেশত্যাগ অব্যাহত রয়েছে। অন্যদিকে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মানবতা বিরোধী অপরাধ ঘটাচ্ছে মিয়ানমার এমন অভিযোগ করছে শীর্ষ স্থানীয় মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠনগুলো। তারা জরুরি ভিত্তিতে এ জন্য পদক্ষেপ নিতে আহ্বান জানিয়েছে নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি। মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচের জাতিসংঘে নিয়োজিত পরিচালক লোউ চারবোনেউ নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা দিতে হবে। রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে যারা অপরাধ সংঘটিত করছে তাদের বিরুদ্ধে অবরোধ দিতে হবে। তিনি বলেন, আমরা আশা করি এই পরিষদের মাধ্যমে জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ নেবেন জাতিসংঘ মহাসচিব। ওদিকে আগামী সপ্তাহে মিয়ানমার পরিস্থিতি নিয়ে ব্রিফ করতে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে ফ্রান্স।

Monday, Sep 25 2017

আন্তর্জাতি ডেস্ক:
মিয়ানমার রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনাবাহিনীর তথাকথিত ক্লিয়ারেন্স অপারেশনের মুখে রোহিঙ্গা মুসলিমদের জাতিগত নিধনযজ্ঞের সমালোচনা চলছে সারা বিশ্বে। এই পরিস্থিতিতে রাখাইনে ‘শান্তি’ বজায় রাখতে মিয়ানমারকে ১ লাখ ৪৭ হাজার ডলার সহযোগিতা দিয়েছে চীন।
চীনা বার্তা সংস্থা সিনহুজয়ার খবরে বলা হয়েছে, আর্থিক সহযোগিতা প্রদানের অনুষ্ঠানে মিয়ানমারে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত হং লিয়াং উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেছেন, এই অর্থ রাখাইনে শান্তি ফিরিয়ে আনতে ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে কাজে লাগবে।

গ্লোবাল টাইমস-র খবরে বলা হয়েছে, রাখাইনে শান্তি বজায় রাখতে মিয়ানমার সরকারকে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে চীন যা দুই দেশের সম্পর্ককে আরও গভীর করবে। মিয়ানমারের সমাজকল্যাণমন্ত্রী উইন মিয়াত আইয়ি অর্থ সহযোগিতার চীনকে ধন্যবাদ জানান এবং প্রতিশ্রুতি দেন সহযোগিতাটির উপযুক্ত ব্যবহার নিশ্চিত করা হবে।

এদিকে, সিনহুয়া জানিয়েছে, চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইয়ি ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেটনো মারসুদির সঙ্গে মঙ্গলবার বৈঠক করেছেন। বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় বিষয়ের পাশাপাশি রাখাইনের পরিস্থিতি নিয়ে তারা আলোচনা করেছেন।

২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইনে দেশটির সেনাবাহিনীর তথাকথিত ক্লিয়ারেন্স অপারেশন শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত ৪ লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। জাতিসংঘ এই অভিযানকে ‘জাতিগত নিধনযজ্ঞের পাঠ্যপুস্তকীয় উদাহরণ’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে।

তবে রোহিঙ্গা ইস্যুতে সব সময় মিয়ানমারের পাশে দাঁড়িয়েছে। চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জেং শুয়াং। তিনি বলেন, রাখাইন রাজ্যে সংঘটিত সহিংসতার নিন্দা জানাচ্ছে চীন। তবে সেখানে ‘শান্তি ও স্থিতিশীলতা’ বজায় রাখতে মিয়ানমার সরকার যে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তার প্রতি আমাদের সমর্থন রয়েছে।

মিয়ানমারের সঙ্গে চীনের ঘনিষ্ঠতা দীর্ঘদিনের। দুই দেশেই অধিকাংশ মানুষ বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী। মিয়ানমারের অন্যতম প্রধান বাণিজ্যিক অংশীদার চীন। জাতিসংঘের

কূটনীতিকদের অভিযোগ, এর আগেও রোহিঙ্গা-সংকটকে জাতিসংঘের শীর্ষ কাউন্সিলে উত্থাপনে বিরোধিতা করে বেইজিং। সূত্র: সিনহুয়া, গ্লোবাল টাইমস।
 


Monday, Sep 25 2017

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

রোহিঙ্গাদের ফাইল ছবিমিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা লোকজনের মধ্যে অনেক নারী ধর্ষণ এবং অন্যান্য নানা ধরনের যৌন নিগ্রহের শিকার হয়েছেন। জাতিসংঘের চিকিৎসক অন্য স্বাস্থ্যকর্মীরা তথ্য নিশ্চিত করেছেন

রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে প্রায় লাখ ২৯ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছেন। রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন চিকিৎসক দল থেকে প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ করেছে রয়টার্স। এতে দেখা গেছে, যৌন হয়রানি থেকে শুরু করে গণধর্ষণেরও শিকার হয়েছেন রোহিঙ্গা নারীরা। এসব যৌন নিগ্রহের অভিযোগ উঠেছে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে

কক্সবাজারে আটজন স্বাস্থ্য সুরক্ষাকর্মীর সঙ্গে কথা বলেছে রয়টার্স। তাঁরা দাবি করেছেন, আগস্ট মাস থেকে ধর্ষণের শিকার মোট ২৫ জন নারীর চিকিৎসা করেছেন। ওই চিকিৎসকেরা বলছেন, নির্যাতনের শিকার নারীরা বলেছেন, মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সদস্যরা এর জন্য দায়ী

লেদায় জাতিসংঘের ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর মাইগ্রেশনের (আইওএম) চালানো একটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্য সমন্বয়ক নিরন্ত কুমার বলেন, রোহিঙ্গা নারীদের ওপরআগ্রাসী হামলাচালানো হয়েছে। রোগীদের পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে বলা হয়, অনেক নারীর ওপরঅমানুষিক শারীরিক নির্যাতনচালানো হয়েছে

মিয়ানমারের সরকারি কর্মকর্তারা অবশ্য এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তাঁদের দাবি, সামরিক বাহিনীর মর্যাদা ভূলুণ্ঠিত করার জন্য বিচ্ছিন্নতাবাদী জঙ্গিগোষ্ঠীগুলো এসব প্রোপাগান্ডা চালাচ্ছে। মিয়ানমার বলছে, নিজেদের নাগরিকদের রক্ষা করার জন্য রাখাইন রাজ্যে অভিযান চালানো হচ্ছে

গত ২৫ আগস্ট রাতে রাখাইনে কয়েকটি পুলিশ ফাঁড়ি তল্লাশিচৌকিতে সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়। ওই হামলার জেরে রাখাইন রাজ্যে নতুন করে সেনা অভিযান শুরু হয়। মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী নিরস্ত্র রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ শিশুদের ওপর নির্যাতন হত্যাযজ্ঞ চালাতে থাকে বলে অভিযোগ ওঠে। জাতিসংঘের মানবাধিকার-সংক্রান্ত হাইকমিশনার জাইদ রা আল-হুসেইন নিপীড়নকেজাতিগত নির্মূলের এক আদর্শ উদাহরণবলে অভিহিত করেছেন। 
আশ্রয়শিবিরে কাজ করা আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা-আইওএমের চিকিৎসক তাসনুবা নওরিন বলেন, ‘আমরা নারীদের শরীরে জোরপূর্বক আঘাতের চিহ্ন দেখেছি। এগুলো খুব অমানবিক আঘাত।

 

 

 

 

Monday, Sep 25 2017


আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

হানিপ্রীত ও রাম রহিম দুই অনু সারীকে ধর্ষণের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত ভারতের কথিত ধর্মগুরুগু রমিত রাম রহিম সিংয়ের কাছে সন্তান চেয়ে ছিলেন তাঁর পালিত কন্যাহা নিপ্রীত।

গুরদাসসিং তুর নামে রাম রহিমের এক অনুসারী সম্প্রতি এ দাবি করেছেন। তিনি বলেন, অনা গত সন্তানকে ডেরার সাচা সৌধার ভবিষ্যৎ উত্তরাধিকারী বানাতে চেয়ে ছিলেন হানিপ্রীত।

এর আগে গত শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে হানিপ্রীতের সাবেক স্বামী বিশ্বাস গুপ্ত দাবি করেন, পালিত কন্যা হলেও হানিপ্রীতের সঙ্গে রাম রহিমের অবৈধ সম্পর্ক ছিল। তিনি আরও বলেন, ডেরার ভেতর রাম রহিমের সঙ্গে হানিপ্রীতকে নগ্ন অবস্থায় দেখা গেছে।

ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাম রহিমের নিজের সন্তান জসমিত সিং ইনসান। ২০০৭ সালে তাঁকে ডেরার উত্তরাধিকারী ঘোষণা করা হয়। কিন্তু হানিপ্রীতের কথায় শেষে মন পরিবর্তন করেন রাম রহিম।

রাম রহিমের বিরুদ্ধে করা মামলায় তদন্ত সংস্থা সিবিআইয়ের একজন গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষী ছিলেন গুরুদাস সিং তুর। তিনি ডেরার একজন সাবেক অনুসারী। গুরুদাস সিং তুর বলেছেন, হানিপ্রীত ও রাম রহিম সন্তান চেয়েছিলেন। তবে কার ঔরসে সেই সন্তানের জন্ম, তা গোপন রাখার পরিকল্পনা ছিল তাঁদের। মূলত ডেরার ভবিষ্যৎ উত্তরাধিকারী নির্বাচন করতেই হানিপ্রীত সন্তান চেয়েছিলেন।

গুরমিত সিং তুর ইন্ডিয়া টুডেকে বলেন, ‘জসমিত সিং ইনসানের বিপক্ষে ছিলেন রাম রহিম। তিনি জসমিতকে ডেরাপ্রধান বানাতে আগ্রহী ছিলেন না। ডেরার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ক্ষমতাধর ব্যক্তি ছিলেন হানিপ্রীত। তিনি রাম রহিমের ঔরসে সন্তান ধারণ করতে চেয়েছিলেন। হানিপ্রীত ও রাম রহিম—দুজনই অনাগত সন্তানকে ডেরার ভবিষ্যৎ উত্তরাধিকারী বানাতে চেয়েছিলেন। তাঁদের পরিকল্পনা এমনই ছিল।’

গুরুদাসের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, হানিপ্রীতের সাবেক স্বামী বিশ্বাস গুপ্তকে আনুষ্ঠানিকভাবে অনাগত সন্তানের বাবা হিসেবে দেখানোর পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু বাস্তবায়নের আগেই তা ভেস্তে যায়। কারণ হানিপ্রীতের সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটান বিশ্বাস গুপ্ত।

এর আগে ডেরায় থাকা কমপক্ষে দুই হাজার নারীকে রাম রহিম ধর্ষণ করেছেন বলে জানিয়েছিলেন এক সাধ্বী। রাম রহিম কারাগারে যাওয়ার পর থেকে হরিয়ানায় সিরসার ডেরায় নিয়মিত অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। সেখানে অভিযানের শুরুর দিকে বিপুল পরিমাণ কনডম ও জন্মনিরোধক ওষুধ জব্দ করা হয়।
 
ডেরার ভেতর সাধ্বী হোস্টেলে রাম রহিমের সরাসরি যাতায়াত ছিল। ওই যাতায়াতের জন্যই দুটি গোপন সুড়ঙ্গ তৈরি করা হয়েছিল। এ ছাড়া ডেরায় পানির নিচে গোপন ‘সেক্স কেভ’ বা ‘যৌন গুহার’ সন্ধান পেয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।
 
ডেরার প্রাসাদ চত্বরে যে সুইমিং পুল রয়েছে, তার নিচেই ওই ‘যৌন গুহা’ গড়ে তুলেছিলেন ডেরাপ্রধান রাম রহিম। গোপন গুহায় নারীদের নিয়ে অনৈতিক কার্যকলাপ চালাতেন তিনি।

গত ২৫ আগস্ট দুই নারী ভক্তকে ধর্ষণের অভিযোগে করা দুটি মামলায় দোষী সাব্যস্ত করা হয় রাম রহিমকে। এরপর নেওয়া হয় রোহতক শহর থেকে ১০ কিলোমিটার দূরের সানোরিয়া কারাগারে। এতে রাম রহিমের সমর্থকেরা 

পঞ্চকুলা এলাকায় তাণ্ডব শুরু করেন। পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষে ৩১ জন নিহত ও ২৫০ জন আহত হন। পরে গত ২৮ আগস্ট রাম রহিমকে দুটি মামলায় ১০ বছর করে ২০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেন সিবিআই আদালত।

Monday, Sep 25 2017
 

 

আগাম নির্বাচনের আহ্বান জানিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। আজ সোমবার এ আহবান জানান তিনি। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। খবরে বলা হয়, জাপানের বিরোধীদলের অবস্থা বর্তমানে দুর্বল ও ভক্সগুর। বিরোধীদলের এমন অবস্থাকে কাজে লাগিয়ে নতুন করে ক্ষমতায় আসতে চাচ্ছেন আবে। উল্লেখ্য, আবের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। তবে জনমত জরিপে দেখা গেছে সম্প্রতি জনগণের কাছে পুনরায় জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন তিনি। আবে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি সেপ্টেম্বরের ২৮ তারিখে পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেবো।’ এটা হচ্ছে কোন সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার আগের পদক্ষেপ। নির্বাচনটি কবে অনুষ্ঠিত হবে সে বিষয়ে কিছু বলেন নি আবে। তবে ধারণা করা হচ্ছে, অক্টোবরের ২২ তারিখ ভোট গ্রহণ করা হতে পারে। জনমত জরিপে দেখা গেছে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে আবের উগ্র জাতিয়তাবাদী অবস্থান সমর্থন করে ভোটাররা। উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে দেশটির উত্তেজনা বেড়েই চলেছে। ইতিমধ্যে উত্তর কোরিয়া দেশটির ওপর দিয়ে দুটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে। পাশাপাশি জাপানকে ডুবিয়ে দেয়ার হুমকিও দিয়েছে পিয়ংইয়ং। আবে বলেন, ‘এই নির্বাচন হচ্ছে গণতন্ত্রের কেন্দ্র। উত্তর কোরিয়ার হুমকি এতে প্রভাব ফেলা উচিৎ নয়। বরং, এই নির্বাচনের মাধ্যমে আমি দেখতে চাই জনগণ কিভাবে উত্তর কোরিয়া ইস্যুটি সামলাতে চায়।’

Page 18 of 24

যারা অনলাইনে আছেন

We have 337 guests and 35 members online

  • glaxclerge
  • lidurdateleathe
  • incuhyterscomsa
  • rijcflathanphochicta
  • taleamaxffreesunil
  • optionmoon6
  • Newton55Pitts
  • kinaparris82459929130
  • ParksChoi06
  • PorterKessler19
  • jameyizr0505398851
  • emilltq9449312322
  • verleneburd2
  • vedacjh56445563324133
  • ramonaeaves681
  • duaneriver4872840
  • solomonkimbrough58
  • susiefreitag017
  • camillablakely454338
  • shennamount39214103
  • aidanjerome706091
  • bjbngdgxjhgo33
  • louisalarnach715509
  • 92g7kd6hfvkhubn
  • nc2xonpmx4t4vr
  • cp1wryfl2ozipr
  • maritanewport3149
  • elveratibbs4139
  • 70ilxxyeg75i8cq
  • om5uqiuck79wg4b
  • ihhibhiqd
  • nmupfabva
  • q0o9y6p26puyo2f
  • umzqy6r9ubm4l1j
  • gitdoziho

Subscribe to our newsletter

ইভেন্ট

ছবি ও ভিডিও

Style Setting

Fonts

Layouts

Direction

Template Widths

px  %

px  %