খালেদার আপিল গ্রহণযোগ্যতার ওপর শুনানি বৃহস্পতিবার

রাজনীতি
Typography
  • Smaller Small Medium Big Bigger
  • Default Helvetica Segoe Georgia Times

খালেদার আপিল গ্রহণযোগ্যতার ওপর শুনানি বৃহস্পতিবার


জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার সাজার বিরুদ্ধে করা আপিলের গ্রহণযোগ্যতার ওপর শুনানি হবে বৃহস্পতিবার। আজ মঙ্গলবার দুপুরে খালেদা জিয়ার পক্ষে তাঁর আইনজীবীরা হাইকোর্টে আপিল করেন। এরপর বিকেল পৌনে চারটার দিকে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে বিষয়টি (মেনশন স্লিপ) উপস্থাপন করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। পরে আদালত আপিলের গ্রহণযোগ্যতার ওপর শুনানির জন্য বৃহস্পতিবার দিন ধার্য করেন।

শুরুতে খালেদা জিয়ার অন্যতম আইনজীবী জয়নুল আবেদীন আদালতকে জানান, খালেদা জিয়ার পক্ষে আপিল করা হয়েছে।

এ সময় ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ফরহাদ আহমেদ বলেন, ‘ জামিনের দরখাস্ত থাকলে আমাদের (রাষ্ট্রপক্ষ) যেন কপি দেওয়া হয়।’

তখন আদালত বলেন, ‘ তাঁরা (বিএনপির আইনজীবীরা) তো মেনশন স্লিপ দিচ্ছেন। জামিনের দরখাস্ত থাকলে আগে দিয়ে দেবেন (বিএনপির আইনজীবীদের উদ্দেশে)।’

খালেদা জিয়ার অপর আইনজীবী মাহবুব উদ্দিন খোকন সেই সময় বলেন, ‘ কাল (বুধবার) বন্ধ। বৃহস্পতিবার সকালে আবেদনের কপি দেওয়া হবে।’

একপর্যায়ে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম রাষ্ট্রপক্ষকে আবেদনের কপি দেওয়ার কথা বলেন এবং রোববার শুনানির জন্য দিন রাখা যেতে পারে বলে মতামত দেন।

ওই সময় আদালত বিএনপির আইনজীবীদের আজকের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষকে কপি দিয়ে দিতে বলেন। বৃহস্পতিবার দিন ধার্য করে আদালত বলেন, ‘দুদকের মামলা সাধারণত বুধবার ও বৃহস্পতিবার শুনানির জন্য আসে। এটি বৃহস্পতিবার তালিকায় আসবে।’

৮ ফেব্রুয়ারি বিশেষ জজ আদালত-৫ এই মামলার রায় দেন। এতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে দুর্নীতির জন্য পাঁচ বছরের সাজা ও জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া খালেদা জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমানসহ অপর পাঁচ আসামির প্রত্যেককে ১০ বছরের জেল ও জরিমানা করা হয়।

রায়ের দিন আদালত ৬৩২ পৃষ্ঠার রায়ের সারসংক্ষেপ পড়েন। রায়ের অনুলিপি ১ হাজার ১৭৪ পৃষ্ঠার।

রায়ের পর থেকে নাজিমউদ্দিন রোডের কারাগারে রয়েছেন খালেদা জিয়া।